• ঢাকা
  • শনিবার, ১৮ মে, ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১,

রাশিয়ার পূর্বাঞ্চলে অগ্ন্যুৎপাতের পর ভূমিকম্প


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: এপ্রিল ১২, ২০২৩, ১২:৩০ পিএম
রাশিয়ার পূর্বাঞ্চলে অগ্ন্যুৎপাতের পর ভূমিকম্প

রাশিয়ার সবচেয়ে সক্রিয় আগ্নেয়গিরিগুলোর মধ্যে একটিতে অগ্ন্যুৎপাত হয়েছে। মঙ্গলবার দেশটির পূর্বাঞ্চলীয় কামচাটকা উপদ্বীপে এই অগ্ন্যুৎপাত হয়। এ ঘটনায় অঞ্চলটির একাধিক গ্রাম ছাইয়ে ঢেকে গেছে। আগ্নেয়গিরির ধুলোবালির কারণে সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

বুধবার (১২ এপ্রিল) ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে। দেশটির একাডেমি অব সায়েন্সেস জিওফিজিক্যাল সার্ভের কামচাটকা শাখার তথ্য অনুসারে, শিভেলুচ আগ্নেয়গিরিতে সোমবার মধ্যরাতে অগ্ন্যুৎপাত হয়। ছয় ঘণ্টা ধরে অগ্ন্যুৎপাতের ফলে ১ লাখ ৮ হাজার বর্গকিলোমিটার এলাকায় আকাশে ছাই ছড়িয়ে পড়ে।

আগ্নেয়গিরি থেকে ছড়িয়ে পড়া লাভায় তুষার গলে যায়। এতে কাছের একটি মহাসড়কে সতর্কতা জারি করা হয়েছে। অগ্ন্যুৎপাতের ফলে আশপাশের কয়েকটি গ্রাম ৮ দশমিক ৫ সেন্টিমিটার (সাড়ে তিন ইঞ্চি) পুরু ধূসর ছাইয়ের চাদরে ঢাকা পড়েছে, যা ৬০ বছরের মধ্যে সবচেয়ে গভীর।

জিওফিজিক্যাল সার্ভে কামচাটকা শাখার প্রধান ডানিলা চেভরভ বলেন, “ছাই ২০ কিলোমিটার উঁচুতে পৌঁছায়। এই ছাইয়ের মেঘ হয়তো পশ্চিম দিকে যেতে পারে। আশপাশের গ্রামগুলোতে এই পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। প্রায় এক বছর ধরে অগ্ন্যুৎপাতের জন্য আগ্নেয়গিরিটি প্রস্তুতি নিচ্ছিল। প্রক্রিয়াটি জারি থাকলেও এখন কিছুটা শান্ত। তবে ছাইয়ের মেঘের আশঙ্কা একেবারে উড়িয়ে দেওয়া যায় না। স্থানীয় গ্রামগুলোতে লাভা পৌঁছায়নি।”

অগ্ন্যুৎপাতের প্রায় ২৪ ঘণ্টা পর অঞ্চলটিতে ৫ দশমিক ৮ মাত্রার ভূমিকম্প হয়েছে।

রুশ বিজ্ঞানীরা বলছেন, এই কম্পন ৩ এপ্রিলের একটি ভূমিকম্পের আফটার শক। কামচাটকা উপদ্বীপে প্রায় ৩ লাখ মানুষের বসবাস। এটি জাপানের উত্তর-পূর্ব দিকে প্রশান্ত মহাসাগরের কাছে অবস্থিত। শুরু হওয়ার ১৫ ঘণ্টা পরও অগ্ন্যুৎপাত হয়েছে আগ্নেয়গিরি থেকে। তাৎক্ষণিকভাবে কোনো হতাহতের তথ্য পাওয়া যায়নি।

Link copied!