• ঢাকা
  • বুধবার, ১৯ জুন, ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১, ১২ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

শনিবার ক্লাস নিয়ে যে সিদ্ধান্ত হলো


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: মে ২০, ২০২৪, ০২:১০ পিএম
শনিবার ক্লাস নিয়ে যে সিদ্ধান্ত হলো
ছবি : সংগৃহীত

আসন্ন ঈদুল আজহার পর দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শনিবারের ক্লাস বন্ধ থাকলেও ডাবল শিফট প্রতিষ্ঠানে পাঠদান অব্যাহত থাকবে। ২০২৫ সাল থেকে এন্ট্রি পর্যায়ে ভর্তি বন্ধ করে পাঁচ বছরের মধ্যে ধাপে ধাপে সব প্রতিষ্ঠানে ডাবল শিফট পুরোপুরি বন্ধ করতে হবে। দ্বিতীয় শিফটের শিক্ষকদের নতুন করে এমপিওভুক্ত দেওয়া হবে না। অন্যদিকে যেসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শাখা ক্যাম্পাস বা ব্রাঞ্চ আছে, স্বতন্ত্র প্রতিষ্ঠান হিসেবে সেগুলো চালাবে আলাদা ব্যবস্থাপনা কমিটি।

সম্প্রতি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক বৈঠকে এসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশও দেওয়া হয়েছে। গত ২১ এপ্রিল শিক্ষামন্ত্রীর সভাপতিত্বে এই বৈঠক হয়। বৈঠকে সূত্রে জানা গেছে, নতুন কারিকুলাম বাস্তবায়নে জন্য এসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।  

বৈঠকের বিষয়টি নিশ্চিত করে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক (কলেজ ও প্রশাসন) অধ্যাপক শাহেদুল খবির চৌধুরী বলেন, “প্রতিটি শিফটের জন্য ছয় ঘণ্টা প্রয়োজন। ফলে ডাবল শিফট কোনোভাবেই চালু রাখা সম্ভব নয়। বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান স্থাপন, পাঠদান ও একাডেমিক স্বীকৃতি নীতিমালা অনুযায়ী ব্রাঞ্চ খোলা যাবে না। নতুন করে এডুকেশনাল ইনস্টিটিউট আইডেন্টিফিকেশন নম্বর (ইআইআইএন) বা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান শনাক্তকারী নম্বর দেওয়ার মাধ্যমে আলাদা প্রতিষ্ঠান হিসেবে পরিচালনা করতে হলে প্রতিষ্ঠানের স্থায়ী ও অস্থায়ী সম্পদ ব্রাঞ্চগুলোর মধ্যে কীভাবে ভাগ করা হবে সে বিষয়ে একটি গাইডলাইন মন্ত্রণালয় থেকে দেওয়া যেতে পারে।”

বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে, দেশের কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ডাবল শিফট থাকবে না। একটি শিফট চালানোর জন্য যত শিক্ষার্থী ভর্তি করা প্রয়োজন, এর বাইরে বেশি শিক্ষার্থী ভর্তি করা যাবে না ২০২৫ সাল থেকে। এভাবে ধাপে ধাপে সব প্রতিষ্ঠানে ডাবল শিফট পুরোপুরি বন্ধ করতে হবে। এছাড়া এক শিফটে রূপান্তর না হওয়া পর্যন্ত শনিবারে শ্রেণি কার্যক্রম চলবে ডাবল শিফটের সব বিদ্যালয়ে।

আরও সিদ্ধান্ত হয়েছে, দ্বিতীয় শিফট চালানোর জন্য নিয়োগ দেওয়া যেসব শিক্ষক এমপিও পেয়েছেন, তাদের সমন্বয় করে কাজে নিয়োজিত রাখার কৌশল নির্ধারণ করতে হবে। ডাবল শিফটের প্রতিষ্ঠানে দ্বিতীয় শিফটে নতুন করে শ্রেণিশাখা খোলার অনুমোদন দেওয়া হবে না।

কোনো স্কুলে যদি এখনই দুটি শিফটের শিক্ষার্থীদের এক করে একটি শিফটে নিয়ে আসার মতো পর্যাপ্ত শ্রেণিকক্ষসহ প্রয়োজনীয় অবকাঠামো থাকে, তাহলে তারা মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন সাপেক্ষে এখন থেকেই একক শিফটে পাঠদান চালাতে পারবে।

শিক্ষা বিভাগের আরো খবর

Link copied!