• ঢাকা
  • রবিবার, ২১ জুলাই, ২০২৪, ৬ শ্রাবণ ১৪৩১, ১৪ মুহররম ১৪৪৫

জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কার পাওয়ায় ইবি উপাচার্যকে শুভেচ্ছা


ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি
প্রকাশিত: মে ১৬, ২০২২, ০৪:২১ পিএম
জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কার পাওয়ায় ইবি উপাচার্যকে শুভেচ্ছা

জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কার পাওয়ায় ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালামকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা। সোমবার (১৬ মে) বেলা ১১টায় প্রশাসন ভবনের সম্মেলন কক্ষে তাকে অভিনন্দন জানিয়ে ফুলের শুভেচ্ছা জানানো হয়। বিশ্ববিদ্যালয় প্রগতিশীল শিক্ষকদের সংগঠন শাপলা ফোরাম, বঙ্গবন্ধু পরিষদ, শারীরিক শিক্ষা বিভাগ ও সহায়ক কর্মচারী সমিতি এ শুভেচ্ছা জানিয়েছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো.মাহবুবুর রহমান। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এবং প্রক্টর অধ্যাপক ড. জাহাঙ্গীর হোসেন, শাপলা ফোরামের সভাপতি অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন, ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার মু. আতাউর রহমান ও শারীরিক শিক্ষা বিভাগের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক ড. মোহাম্মদ সোহেল।

বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মাহবুবুল আরফিন অনুষ্ঠানে সঞ্চালনা করেন।

উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. মাহবুবুর রহমান বলেন, “উপাচার্য মহোদয় আমাদের তার এতো বড় অবদানের কথা কখনও বলেননি। কিন্তু যখন শুনেছি, তিনি জাতীয় পুরস্কার নিতে যাবেন তখন মনে মনে ভেবেছিলাম, আমি সঙ্গে যেতে পারব কি-না। পরক্ষণে উপাচার্য মহোদয় বলেন ‘আপনাকে আমার সঙ্গে যেতে হবে’ এবং আমি খুব খুশি হই। এটা শুধু ভিসি মহোদয়ের অর্জন নয় এটা আমাদের অর্জন, ইবি পরিবারের অর্জন।”

উপাচার্য বলেন, “আমি জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কার পাব কখনো ভাবিনি। পুরস্কার পাওয়ার জন্য ক্রীড়া নিয়ে কাজ করিনি। আমাকে মনোনীত করায় প্রধানমন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। আজকের অভিনন্দন সভায় আমার ছাত্ররা থাকলে খুব ভালো হতো, তারা এখান থেকে শিখত। যেকোনো কিছু করতে গেলে তার পিছনে ধারাবাহিকভাবে লেগে থাকতে হয়। সর্বোপরি সকল ফোরাম, পরিষদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি।”

১১ মে (বুধবার) জাতীয় ক্রীড়া পুরস্কার-২০১৫ পেয়েছেন ইবির ভিসি অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালাম। ভার্চুয়াল কনফারেন্সে প্রধান অতিথি হিসেবে পুরস্কার প্রদান করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ক্রীড়া ক্ষেত্রে অসামান্য অবদানের জন্য ‘সংগঠক ক্যারাম’ ক্যাটাগরিতে তাকে এ পুরস্কার দেয় যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়। 

Link copied!