• ঢাকা
  • বৃহস্পতিবার, ২৩ মে, ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১,

গোপালগঞ্জে বিশ্ববিদ্যালয় ও মেডিকেল শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষ


গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি
প্রকাশিত: নভেম্বর ২২, ২০২১, ০৮:৪২ এএম
গোপালগঞ্জে বিশ্ববিদ্যালয় ও মেডিকেল শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষ

গোপালগঞ্জে ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থী ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) শিক্ষার্থীদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটছে। 

সংঘর্ষের ঘটনায় ইটের আঘাতে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি), বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও সংবাদকর্মীসহ অন্তত অর্ধশত আহত হয়েছেন। আহতদের গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা প্রদান করা হয়নি বলে অভিযোগ পাওয়া গিয়েছে। এ সময় গুরুতর আহত পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী অজয় এবং সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষার্থী সায়েমকে খুলনা পাঠানো হয়েছে।

রোববার (২১ নভেম্বর) রাত ৯টা থেকে থেমে থেমে চলা ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে বেশ কয়েক রাউন্ড টিয়ার সেল নিক্ষেপ করে। রাত পৌনে ১২টায় পুলিশ অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন এবং আনসার ভিডিপি মোতায়েন এর ফলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

সংঘর্ষের প্রত্যক্ষদর্শী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী বলেন, “বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্ররা মেডিকেল প্রাঙ্গণে ক্রিকেট খেলেছিলেন, এ সময় মেডিকেলের কিছু শিক্ষার্থী তাদের বাধা দেয়। এমন অবস্থায় মেডিকেল ছাত্র হলের প্রভোস্ট বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করলে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা তার প্রতিবাদ জানায়। বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদের মুখে মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মারতে উদ্যত হয়।“

এ বিষয়ে শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদের প্রতি ইভটিজিং অভিযোগ আনে। অবশ্য প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীরা মেডিকেল ছাত্রীদের ইভ টিজিংয়ের ঘটনা অস্বীকার করে বলেন, “আমাদের মেডিকেল মাঠে খেলতে দেবে না বলে এ ঘটনা পুরোপুরি মনগড়া সাজানো হয়েছে।”

এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসাধীন শিক্ষার্থীদের হাতে ৪০০০ টাকা প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য প্রদান করে বশেমুরবিপ্রবি প্রক্টর জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের শান্তিপূর্ণ আচরণ করতে হবে। তিনি শিক্ষার্থীদের আশ্বাস দিয়ে বলেছেন এই ঘটনার যথাযথ বিচার হবে এবং দোষীরা অবশ্যই শাস্তি পাবে।

Link copied!