• ঢাকা
  • রবিবার, ১৬ জুন, ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১, ৯ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নৌকাডুবি, মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৯


ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি
প্রকাশিত: আগস্ট ২৭, ২০২১, ০৯:৫৪ পিএম
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নৌকাডুবি, মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৯

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলার লইছকা বিলে যাত্রীবাহী নৌকা ডুবে গেছে।

শুক্রবার (২৭ আগস্ট) বিকেল সোয়া ৫টার দিকে বালুবোঝাই একটি ট্রলারের সঙ্গে যাত্রীবাহী নৌকার সংঘর্ষে এ দুর্ঘটনা ঘটনা।

রাতে ঘটনাস্থল থেকে আরও আরও ৯ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়। এর আগে আরও ১০ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়। তবে তাৎক্ষণিকভাবে তাদের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

নৌকাডুবির ঘটনায় প্রথমে ১০ জনের লাশ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেন সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমরানুল ইসলাম। উদ্ধার অভিযান চলছে।

রাত সাড়ে ৯টার সময় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পুলিশ সুপার (এসপি) মো. আনিসুর রহমান জানান, রাত ৯টা পর্যন্ত ১৯ জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। দুর্ঘটনার খবর পাওয়ার পর পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে স্থানীয়দের সহযোগিতায় উদ্ধারকাজে অংশগ্রহণ করে। কিশোরগঞ্জ থেকে একদল ডুবুরি ঘটনাস্থলের উদ্দেশে রওনা হয়েছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার বিকেলের দিকে উপজেলার চম্পকনগর নৌকার ঘাট থেকে যাত্রীবাহী একটি নৌকা ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদরের উদ্দেশে রওনা করে। উপজেলার পত্তন ইউনিয়নের লইছকা বিলে বালুবাহী একটি স্টিলের নৌকার সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। সে সময় যাত্রীবাহী নৌকাটির পেছনে আরেকটি বালুবাহী নৌকা ছিল। এটিও যাত্রীবাহী নৌকাটিতে সজোরে ধাক্কা দেয়। এতে যাত্রীবাহী নৌকাটি উল্টে ডুবে যায়। নৌকাটিতে শতাধিক যাত্রী ছিলেন।

নৌকার এক যাত্রী বলেন, “বিজয়নগরের চম্পকনগর থেকে বিকেল সাড়ে ৪টায় অন্তত শতাধিক যাত্রী নিয়ে ছেড়ে আসে নৌকাটি। নৌকায় করে আমি, আমার ছেলে, ভাশুরের ছেলে ও শাশুড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আসছিলাম। পথে একটি বালুবোঝাই ট্রলারের সঙ্গে সংঘর্ষ হলে নৌকাটি ডুবে যায়। আমি সাঁতরে কূলে উঠতে পারলেও আমার ছেলে, ভাশুরের ছেলে ও শাশুড়ির এখনো সন্ধান পাইনি।”

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসক (ডিসি) হায়াত-উদ-দৌলা খান জানান, উদ্ধার অভিযান উদ্ধার অভিযান অব্যাহত আছে। এছাড়া ঘটনা অনুসন্ধানে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক রুহুল আমিনকে প্রধান করে তিন সদস্যবিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। ১০ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। যারা নিহত হয়েছেন তাদের পরিবারের প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা দাফনের জন্য দেওয়া হবে। 

Link copied!