• ঢাকা
  • শুক্রবার, ১৪ জুন, ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

বরিশালে আলোচিত সেই মামলায় ৯ আসামির জামিন


বরিশাল প্রতিনিধি
প্রকাশিত: আগস্ট ২৫, ২০২১, ০৪:২৮ পিএম
বরিশালে আলোচিত সেই মামলায় ৯ আসামির জামিন

বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এ কে এম জাহাঙ্গীর হোসেন সাংবাদিকদের জামিনের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বুধবার (২৫ আগস্ট) দুপুর ১টার দিকে জেলার অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম মাসুম বিল্লাহর আদালত তাদের জামিন দেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এ কে এম জাহাঙ্গীর হোসেন।

এ কে এম জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, “আমরা গ্রেপ্তার ২১ জনের জামিন আবেদন করেছিলাম। আদালত ইউএনওর করা মামলায় ৩ জনকে এবং এসআই শাহজালাল মল্লিকের করা মামলায় ৯ জনকে জামিন দিয়েছে। তবে তিনজন উভয় মামলার আসামি হওয়ায় মোট ৯ জন জামিন পেয়েছেন।”

যারা জামিন পেয়েছেন তারা হলেন ইখতিয়ার উদ্দিন, সালাম মনু, আলো গাজী, মমিন উদ্দিন কালু, কবির তালুকদার, হুমায়ুন কবির হাওলাদার, মো. ইলিয়াস, জমির উদ্দিন, নাসির উদ্দিন শরীফ। তাদের মধ্যে ইখতিয়ার, সালাম ও আলো ২ মামলায় জামিন পেয়েছেন। বাকিরা একটিতে জামিন পান।

এর আগে ২২ আগস্ট বরিশালের অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে গ্রেপ্তার ১৮ জনের জামিন আবেদন করা হয়। আদালত তাদের জামিন বাতিল করে কারাগারেই চিকিৎসার নির্দেশ দেন।

১৮ আগস্ট রাতে সদর উপজেলা পরিষদ চত্বরের ঘটনায় দুটি মামলায় বরিশাল সিটি করপোরেশনের মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহসহ ৬০২ জনকে আসামি করা হয়।

ঘটনার সূত্রপাত, বরিশাল সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ের সামনে ১৮ আগস্ট রাতে শোক দিবসের ব্যানার খুলতে যান ব‌রিশাল সি‌টি করপোরেশনের কর্মচারীরা। এ সময় ব্যানার খোলার কারণ জানা নিয়ে ইউএনও মুনিবুর রহমানের সঙ্গে সি‌টির প্রশাস‌নিক কর্মকর্তা স্বপন কুমার দাসের কথা-কাটাকা‌টি হয়।

প্রশাস‌নিক কর্মকর্তার সঙ্গে থাকা আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা ওই সময় ইউএনওর সঙ্গে বিবাদে জ‌ড়িয়ে পড়েন। পরে সেখানে উপ‌স্থিত আনসার‌ সদস্যদের সঙ্গে হাতাহাতি শুরু হলে উপ‌স্থিত আওয়ামী লী‌গ, যুবলীগ ও ছাত্রলী‌গের নেতা-কর্মীরা ইউএনওর বাসায় হামলার চেষ্টা চালান। এ সময় আনসার সদস্যরা গু‌লি ছুড়লে প্রশাসনিক কর্মকর্তা স্বপন কুমার দাসসহ চারজন আহত হন।

যুবলীগ নেতা শাহ‌রিয়ার বাবু, হারুন অর র‌শিদ ও তানভীরকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় বরিশালের শের-ই-বাংলা মে‌ডি‌কেল কলেজ হাসপাতালে ভ‌র্তি করা হয়।

সংঘর্ষের পর ইউএনওর কার্যালয়ের সামনে পু‌লিশ অবস্থান নিলে আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতা-কর্মীরা ফের ইউএনওর বাসভবনে হামলার চেষ্টা করেন।

এ সময় পু‌লিশ ও সরকারদলীয় নেতা-কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। এতে আহত হন বেশ কয়েকজন। এ ঘটনার পর থেকেই থমথমে ছিল বরিশাল নগরী।

Link copied!