• ঢাকা
  • রবিবার, ২১ জুলাই, ২০২৪, ৬ শ্রাবণ ১৪৩১, ১৪ মুহররম ১৪৪৫

‘দ্য হান্ড্রেড’র নিলামে অবিক্রীত বাংলাদেশের ১০ ক্রিকেটার 


ফারজানা ববি
প্রকাশিত: এপ্রিল ৬, ২০২২, ০৩:০৭ পিএম
‘দ্য হান্ড্রেড’র নিলামে অবিক্রীত বাংলাদেশের ১০ ক্রিকেটার 
ছবি সংগৃহীত

ইংল্যান্ডের ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক ঘরোয়া টুর্নামেন্ট ‘দ্য হান্ড্রেড’র নিলামে দল পাননি বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানসহ বাংলাদেশি ১০ ক্রিকেটার। অবশ্য সাকিব-তামিম শুধু নন, প্লেয়ার্স ড্রাফটে অবিক্রিত থেকে গেছেন ক্রিস গেইল, ডেভিড ওয়ার্নার, নিকোলাস পুরান, মিচেল মার্শের মতো তারকা ক্রিকেটাররাও।

মঙ্গলবার (৫ এপ্রিল) ‘দ্য হান্ড্রেড’র দ্বিতীয় আসরের প্লেয়ার্স ড্রাফটে এক লাখ পাউন্ড ভিত্তিমূল্যে নাম ছিল সাকিব আল হাসানের। এছাড়া ভিত্তিমূল্য ছাড়া নাম দিয়েছিলেন তাসকিন আহমেদ, লিটন দাস, তামিম ইকবাল, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সৌম্য সরকার, আফিফ হোসেন, সাব্বির রহমান, আবু হায়দার রনি ও নাসুম আহমেদ। তবে তাদের প্রতি আগ্রহ দেখায়নি কোনো দল।

চলুন জেনে নেওয়া যাক সব দলের স্কোয়াড

লন্ডন স্পিরিটঃ স্পিরিট কাইরন পোলার্ডকে তাদের দলে পেয়েছে৷ তবে তিনি জাতীয় দল এবং ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগের কারণে টুর্নামেন্টের বেশিরভাগ অংশ মিস করবেন। তারা সুনীল নারিনকে দলে ভেড়ানোর চেষ্টা করেছিল কিন্তু রাইট টু ম্যাচ কার্ডটি ব্যবহার করে ওভাল ইনভিনসিবলস নারিনকে দলে ফেরত নিয়েছে। গ্লেন ম্যাক্সওয়েল এবং ইয়ন মরগান দলের মিডল অর্ডারের দায়িত্বে থাকবেন, মর্গান দলের নেতৃত্ব দেবেন।

স্কোয়াড: কাইরন পোলার্ড, লিয়াম ডসন, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, ইয়ন মরগান, রাইলি মেরেডিথ, জর্ডান থম্পসন, ম্যাসন ক্রেন, ড্যান লরেন্স, ক্রিস উড, ড্যানিয়েল বেল-ড্রামন্ড, রবি বোপারা, অ্যাডাম রসিংটন, ব্লেক কুলেন, ব্র্যাড হুইল, জ্যাক ক্রাওলি ও মার্ক উড।

ওয়েলশ ফায়ারঃ ওয়েলশ দলে জো ক্লার্ক এবং টম ব্যান্টন ড্রাফটে দলের সর্বোচ্চ বেতনের সাইনিং ছিল। কারণ তারা তরুণ খেলোয়াড়দের দলে টানার ব্যাপারে বেশি আগ্রহী ছিল। তারা অ্যাডাম জাম্পা এবং ডেভিড মিলারকে দলে পেয়েছে। তারা দুজনই পুরো মৌসুম খেলবেন বলে আশা করা হচ্ছে। এদের মধ্যে একজন দলের নেতৃত্ব দিতে পারেন। ইংল্যান্ড দলের অনূর্ধ্ব-১৯ তারকা জ্যাকব বেথেলকেও ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

স্কোয়াড: জ্যাক বল, জনি বেয়ারস্টো, জোশ কব, ম্যাট ক্রিচলে, বেন ডাকেট, লিউস ডু প্লোয়, রায়ান হিগিন্স, ডেভিড পেইন, অলি পোপ, জো ক্লার্ক, টম ব্যান্টন, অ্যাডাম জাম্পা, ডেভিড মিলার, নাসিম শাহ, স্যাম হেইন ও জ্যাকব বেথেল।

ম্যানচেস্টার অরিজিনালসঃ অরিজিনালস ড্রাফটে চার খেলোয়াড়কে দলে টেনেছে। তারা আন্দ্রে রাসেল এবং লরি ইভান্সকে ১ লাখ ২৫ হাজার ইউরোতে পেয়েছে। তারা শ্রীলঙ্কার লেগ স্পিনার ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গাকেও দলে যুক্ত করেছে। তিনি আইপিএলে ভালো খেলছেন। তবে দল তাকে পাবে কী না- এ ব্যাপারে সংশয় আছে। ডেথ বোলার হিসেবে দলে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন শন অ্যাবট। বিগ ব্যাশ লিগে তিনি শীর্ষ উইকেট শিকারী। দল ড্যানিয়েল ওয়ারালকেও সাইন করিয়েছে। তাকে সাইন করিয়ে দল অবশ্য সবাইকে অবাক করেছে কারণ তিনি সম্প্রতি বিগ ব্যাশ লিগে বা ব্লাস্ট টি-টোয়েন্টি লিগে ভালো খেলেননি।

স্কোয়াড: কলিন অ্যাকারম্যান, জস বাটলার, ক্যালভিন হ্যারিসন, টম হার্টলি, ফ্রেড ক্ল্যাসেন, টম ল্যামনবি, ওয়েন ম্যাডসেন, জেমি ওভারটন, ম্যাট পারকিনসন, অলি রবিনসন, ফিল সল্ট, আন্দ্রে রাসেল, লরি ইভান্স, ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা, ড্যানিয়েল ওয়ারাল ও শন অ্যাবট।

নর্দার্ন সুপারচার্জার্সঃ তারা দলে ডোয়াইন ব্রাভো এবং ওয়াহাব রিয়াজকে চুক্তিবদ্ধ করেছে। ইনজুরির কারণে ফাফ দু প্লেসিস গত মৌসুম খেলতে পারেননি। তবে তিনি এই মৌসুমে দলে ফিরেছেন এবং সম্ভবত দলের নেতৃত্বে থাকবেন। অ্যাডাম হোসকেও দলে রাখা হয়েছে যিনি ইনজুরির কারণে গত মৌসুম খেলতে পারেননি।

স্কোয়াড: হ্যারি ব্রুক, ব্রাইডন কারস, ফাফ দু প্লেসিস, অ্যাডাম লিথ, ক্যালাম পারকিনসন, ম্যাথিউ পটস, আদিল রশিদ, জন সিম্পসন, বেন স্টোকস, ডেভিড উইলি, ডোয়াইন ব্রাভো, ওয়াহাব রিয়াজ, অ্যাডাম হোস, রিওলোফ ভ্যান ডার মারওয়ে ও লুক রাইট।

ওভাল ইনভিনসিবলসঃ তারা সুনীল নারিনকে দলে পেতে তাদের আরটিএম ব্যবহার করেছিল। ড্যানি ব্রিগসকে ৫০ হাজার ইউরোতে দলে টানা তাদের সুচতুরতার বহিঃপ্রকাশ। অধিনায়ক হিসেবে আছেন স্যাম বিলিংস।

স্কোয়াড: স্যাম বিলিংস, ররি বার্নস, জর্ডান কক্স, স্যাম কারান, টম কুরান, উইল জ্যাকস, সাকিব মাহমুদ, জেসন রয়, নাথান সোটার, রিস টপলে, সুনীল নারিন, ম্যাট মিলনেস, রিলি রোসো, ড্যানি ব্রিগস, হিলটন কার্টরাইট ও জ্যাক লেনিং।

ট্রেন্ট রকেটসঃ তারা হার্ড-হিটিং ব্যাটার হিসেবে কুইন্টন ডি কক এবং টম ব্যান্টনকে দলে টানার চেষ্টা করেছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত টম কোহলার-ক্যাডমোরকে নিয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হয়। তারা কলিন মুনরোকেও দলে নিয়েছে। তিনি সম্ভবত পুরো টুর্নামেন্টেই দলের সাথে থাকবেন।

স্কোয়াড: টম কোহলার-ক্যাডমোর, কলিন মুনরো, লুক ফ্লেচার, ইয়ান ককবেইন, ম্যাট কার্টার, স্যাম কুক, মার্চেন্ট ডি ল্যাঞ্জ, লুইস গ্রেগরি, অ্যালেক্স হেলস, রশিদ খান, ডেভিড মালান, টম মুরস, স্টিভেন মুলানি, সামিত প্যাটেল, জো রুট ও লুক উড।

বার্মিংহাম ফিনিক্সঃ ম্যাথু ওয়েডকে দলে ওপেনার হিসেবে নেওয়া হয়েছে। তিনি পুরো টুর্নামেন্টে দলের সাথে থাকবেন এবং সম্ভবত উইল স্মিডের সাথে ওপেনিং শুরু করবেন। অলি স্টোনও দলের সাথে যুক্ত হয়েছেন। তার ইংলিশ টেস্ট দলের সাথে যোগ দেওয়ার সম্ভাবনা ক্ষীণ। সুতরাং দল তাকে পুরো মৌসুম পাবে বলে আশা করা হচ্ছে। 

স্কোয়াড: টম অ্যাবেল, মঈন আলি, ক্রিস বেঞ্জামিন, হেনরি ব্রুকস, মাইলস হ্যামন্ড, বেনি হাওয়েল, লিয়াম লিভিংস্টোন, অ্যাডাম মিলনে, উইল স্মিড, ক্রিস ওকস, ম্যাথিউ ওয়েড, অলি স্টোন, কেন রিচার্ডসন, ম্যাথিউ ফিশার ও গ্রায়েম ভ্যান বুরেন।

সাউদার্ন ব্রেভঃ ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা ড্রাফটে তেমন কোনো কাজই করেনি। কারণ ইতিমধ্যেই তাদের দল নির্ধারিত ছিল। অনূর্ধ্ব-১৯ তরুণ ইংলিশ লেগ স্পিনার রেহান আহমেদকে দলে টেনে তারা চমক সৃষ্টি করেছিল। তাদের অন্য আরেক খেলোয়াড় হলেন জো ওয়েদারলি যিনি মিডল অর্ডারে ভালো ব্যাটিং করেন।

স্কোয়াড: কুইন্টন ডি কক, রেহান আহমেদ, জো ওয়েদারলি, ড্যান মরিয়ার্টি, জোফরা আর্চার, টিম ডেভিড, অ্যালেক্স ডেভিস, জর্জ গারটন, ক্রিস জর্ডান, জেক লিন্টট, টাইমাল মিলস, ক্রেইগ ওভারটন, মার্কাস স্টয়নিস, জেমস ভিন্স ও রস হোয়াইটলি।

Link copied!