• ঢাকা
  • সোমবার, ২৪ জুন, ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১,

‘ভোগান্তির দায় মেট্রোরেল কর্তৃপক্ষকে নিতে হবে’


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: জুলাই ১৫, ২০২১, ০৯:৪৩ পিএম
‘ভোগান্তির দায় মেট্রোরেল কর্তৃপক্ষকে নিতে হবে’

মেট্রোরেলের নির্মাণকাজের কারণে সাধারণ মানুষের যে ভোগান্তি হচ্ছে এর দায় মেট্রোরেল কর্তৃপক্ষকে নিতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম।

মঙ্গলবার (২৯ জুন) দুপুরে মিরপুরে মেট্রোরেল প্রকল্প এলাকায় জলাবদ্ধতার সার্বিক অবস্থা পরিদর্শনে এসে মেয়র আতিকুল ইসলাম এ মন্তব্য করেন।

মেয়র বলেন, "রাজধানীর কাজীপাড়া ও শেওড়াপাড়া এলাকায় মেট্রোরেলের নির্মাণকাজের কারণে মানুষের ভোগান্তির শেষ নেই। মেট্রোরেল  কর্তৃপক্ষ প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করায় মানুষের ভোগান্তি বেড়েছে। সামনে যাতে এ ধরনের ভোগান্তি না হয়, সেজন্য এখন থেকে মেট্রোরেল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করবে সিটি করপোরেশন।"

আতিকুল বলেন, "যেকোনো নির্মাণকাজ করতে গেলে ভোগান্তি হবে। তবে রোকেয়া সরণি, কাজীপাড়া ও শেওড়াপাড়ায় যা হয়েছে, এর দায় মেট্রোরেল কর্তৃপক্ষকে নিতে হবে। তারা মানুষের ভোগান্তি কম করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। কিন্তু সেই প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ হওয়ায় সাধারণ মানুষের কষ্ট বেড়েছে। এই এলাকায় সড়কে ভোগান্তি দেখতে দেখতে অনেকে দুনিয়া ছেড়ে চলে গেছেন। এটা খুবই দুঃখজনক।"

মিরপুরের রোকেয়া সরণি এলাকায় আবারও পরিদর্শনে মেয়র আতিকুলের সঙ্গে আরও ছিলেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জোবায়দুর রহমান, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা এম সাইদুর রহমান, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী খন্দকার মাহাবুব আলম।

পরিদর্শন শেষে মেয়র আতিকুল সাংবাদিকদের বলেন, "মেট্রোরেল কিংবা এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে—যেটাই নির্মাণ করা হোক না কেন, ওপর দিয়ে যেমন কাজ চলছে, নিচ দিয়েও একই রকম সুন্দরভাবে কাজটি যেন চলে, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। ‘ওপর দিয়ে ফিটফাট আর নিচে সদরঘাট’, এটা হবে না।"

জলাবদ্ধতা নিয়ে মেয়র বলেন, "মিরপুরের এই এলাকায় জলাবদ্ধতা কমাতে ওয়াসার ড্রেনেজ লাইনের কাজ শুরু করেছি। কিন্তু অর্ধেক কাজ শেষ হওয়ার পরে তা থেমে গেছে। বাকি অর্ধেকের কাজ শেষ হয়নি। ওয়াসার কাজ থেকে সিটি করপোরেশন জলাবদ্ধতা নিরসনে খাল ও নালার দায়িত্ব পাওয়ার পরে ওয়াসা কাজ বন্ধ করে দিয়েছে। বাকি কাজ শেষ করতে নিজস্ব অর্থায়নে ৩৬ কোটি টাকার দরপত্র আহ্বানের প্রক্রিয়া শুরু করেছে সিটি করপোরেশন।"

মেয়র বলেন, "এটা না করলে জনগণের ভোগান্তি বছরের পর বছর থাকবে। তাই সরকারে কাছে টাকা পাওয়ার অপেক্ষা না করে নিজস্ব অর্থায়নে বাকি কাজ শেষ করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।"

ড্রেনগুলোকে ডাস্টবিন হিসেবে ব্যবহার না করার অনুরোধ জানিয়েছের মেয়র। তিনি বলেন, ‘আপনারা ফুটপাতে পলিব্যাগ ফেলবেন না। ড্রেনকে ডাস্টবিন হিসেবে ব্যবহার করবেন না। এই শহর বাঁচানোর দায়িত্ব সবার।"

Link copied!