• ঢাকা
  • শুক্রবার, ২৪ মে, ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৬ জ্বিলকদ ১৪৪৫

যেসব খাবার খেয়ে ফিট রয়েছেন নীতা আম্বানি


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: এপ্রিল ২১, ২০২৪, ০৫:৩৩ পিএম
যেসব খাবার খেয়ে ফিট রয়েছেন নীতা আম্বানি
ছবি: সংগৃহীত

ভারতের ধনকুবের মুকেশ আম্বানীর স্ত্রী নীতা আম্বানি বরাবরই আলোচনায় থাকেন। তার রূপ, সৌন্দর্য্য, সাজপোশাক সবকিছুতেই সবার নজর আটকে যায়। বিশাল প্রতিপত্তি ও সম্পত্তি থাকা সত্ত্বেও কোনো আর্টিফিশিয়াল সৌন্দর্য্যকে আয়ত্ত করেননি তিনি। বরং নিজের চেষ্টায় ফিট থেকে  এখনও সৌন্দর্য ধরে রেখেছেন। তাইতো তার রূপ ও ফিটনেসের চর্চা হয় বিশ্বজুড়ে।

নীতা আম্বানি নিজের সৌন্দর্য ও ফিটনেস ধরে রাখার বিষয়টি সাক্ষাতকারে একাধিকবার জানিয়েছেন। কীভাবে নিজের খাদ্যাভাস আর জীবনযাত্রাকে নিয়ন্ত্রণ করে তিনি এখনও যৌবনের মতো সুন্দর ও আকর্ষণীয় হয়ে রয়েছেন তারও বর্ণনা দিয়েছেন। দুই ছেলে আর বৌমা, মেয়ে-জামাই, নাতি-নাতনিদের নিয়ে তার দিন কাটে। সমানতালে সামলাচ্ছেন ব্যবসার কাজও। বয়স ৬০-এর কোঠা পারও করেছে। তবুও তার সবকিছুতেই আভিজাত্য আর বিশেষত্বের ছোয়া পাওয়া যায়। এক সাক্ষাৎকারে নীতা আম্বানি জানান, বিয়ের সময় তার ওজন ছিল ৪৫ কেজি। তিন সন্তানের জন্মের পর ওজন বেড়ে যায়। ওজন গিয়ে দাঁড়ায় ৯০ কেজিতে। সেই ওজন কমিয়ে তিনি এখনও ফিট আছেন। নিজের চেষ্টায় এই বয়সেও নিজেকে ছিপছিপে রেখেছেন।

নিয়মিত শরীরচর্চা না করেও নীতা আম্বানী নিজেকে ফিট রেখেছেন। এর কারণ উন্নত খাদ্যাভাস। বিশাল সম্পত্তি থাকলেও খাওয়া দাওয়া নিয়ে তিনি বরাবরই সচেতন। ইচ্ছে করলেই বিশ্বের সবচেয়ে সুস্বাদু খাবারগুলো তিনি প্রতিদিন খেতে পারেন। কিন্তু নিজের স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভাসই তার কাছে প্রিয়। প্রতিদিন নিয়ম করে কিছু খাবার খান যা তার ফিটনেস ধরে রাখতে সাহায্য করে। চলুন জেনে নেই নীতা আম্বানীর খাদ্যাতালিকায় প্রতিদিন কী কী থাকে_

বিটের রস

নীতা অম্বানীর ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে প্রতিদিন সকালে খালি পেটে বিটের রস পান করেন। প্রতিদিন অন্তত দুই গ্লাস বিটের রস তিনি খান। বিট ওজন নিয়ন্ত্রণে কার্যকর। এতে অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট থাকে যা শরীরের বাড়তি মেদ গলিয়ে দেয়। আবার শরীরে নতুন করে মেদ জমতেও দেয় না।

সবুজ শাকসবজি

নীতা আম্বানীর প্রতিদিনের খাবার টেবিলে সবুজ শাকসবজি দিয়ে তৈরি বিভিন্ন পদের খাবার থাকে। তিনি মাছ-মাংস তেমন খান না। বরং শাক সবজি খেতেই বেশি পছন্দ করেন। নিয়মিত  শাকসবজি খেলে ওজন নিয়ন্ত্রণে থাকে। শাক সবজিতে থাকা প্রোটিন, ফ্যাট, মিনারেলস ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখে।

ফল

প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় ফলও থাকে। যত বেশি ফল খাওয়া যায় ততই শরীরের মেদ কেটে যায়। ত্বকও মসৃণ হয়। নীতা আম্বানীর সকালের নাস্তায় বিভিন্ন ধরণের ফল থাকে। আবার দুপুরের খাবার শেষেও একটি ফল খান। এছাড়াও ফলের জুস তিনি নিয়মিত খান।

ডিটক্স পানীয়

শরীরে মেদ ঝরাতে ডিটক্স পানীয় বেশ উপকারী। নীতা আম্বানী সারা দিন অল্প অল্প করে লেবু, পুদিনা দিয়ে বানানো ডিটক্স পানীয়তে চুমুক দেন। এই পানীয় শরীর থেকে টক্সিন বের করে দেয়। এছাড়াও গ্যাসের সমস্যাও দূর করে। হজম প্রক্রিয়া সহজ করে। আর হজম ঠিক থাকলে ওজন দ্রুত কমে।

Link copied!