• ঢাকা
  • শনিবার, ১৩ জুলাই, ২০২৪, ২৮ আষাঢ় ১৪৩১, ৬ মুহররম ১৪৪৫

তেল শোধনাগারে বিস্ফোরণে পুড়ে শতাধিক মৃত্যু


সংবাদ প্রকাশ ডেস্ক
প্রকাশিত: এপ্রিল ২৪, ২০২২, ১১:২৯ এএম
তেল শোধনাগারে বিস্ফোরণে পুড়ে শতাধিক মৃত্যু

নাইজেরিয়ায় একটি অবৈধ তেল শোধনাগারের ডিপোতে বিস্ফোরণে শতাধিক প্রাণহানির খবর পাওয়া গেছে। স্থানীয় সময় শনিবার ইমো রাজ্যের শেষ সীমান্তে ওহাজি-এগবেমা এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। স্থানীয় সরকারী কর্মকর্তা ও পরিবেশবাদী সংগঠনের তথ্যের বরাতে এই জানিয়েছে রয়টার্স।

রাজ্য জ্বালানি দপ্তরের কমিশনার গুডলাক ওপিয়া জানান, “অবৈধ তেলের বাঙ্কারের আগুন থেকেই এই দুর্ঘটনার সূত্রপাত ঘটে। এতে ১০০ জনেরও বেশি মানুষ দগ্ধ হয়ে মারা গেছে।”

পরিবেশবাদী সংগঠন ইয়ুথস অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টাল অ্যাডভোকেসি সেন্টার জানিয়েছে, অবৈধভাবে বিক্রি করা জ্বালানি তেল কেনার জন্য লাইনে থাকা বেশ কয়েকটি গাড়ি এই বিস্ফোরণে পুড়ে গেছে।

আফ্রিকার বৃহত্তম তেল উৎপাদনকারী ও রপ্তানিকারক দেশ নাইজেরিয়া। সরকারী কর্মকর্তারা জানান, নাইজেরিয়ায় বড় বড় প্রতিষ্ঠানের পাইপলাইনগুলো ছিদ্র করে বা চুরি করে প্রতিদিন গড়ে ২ লাখ ব্যারেল তেল বিক্রি করে অসাধু ব্যবসায়ীরা। যা দেশটির মোট উৎপাদনের ১০ শতাংশেরও বেশি। দুর্ঘটনার শিকার অবৈধ শোধনাগারটি ওহাজি-এগবেমা এলাকার আবায়েজি বনের মধ্যে স্থাপন করা হয়েছিল। 

বেকারত্ব ও দারিদ্র্য বিমোচনের নামে নাইজেরিয়ায় এসব অবৈধ তেল-উৎপাদন ব্যবসা দিন দিন বেড়েই চলছে। অব্যস্থাপনার কারণে সেখানে প্রায়ই এসব দুর্ঘটনা মারাত্মক পরিণতি ডেকে আনছে। দুর্ঘটনার পাশাপাশি কৃষিজমি, খাঁড়ি ও হ্রদগুলিতে তেল ছড়িয়ে পড়ায় এ অঞ্চলের পরিবেশ ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

এর আগে অক্টোবরে রিভারস রাজ্যে আরেকটি অবৈধ শোধনাগারে বিস্ফোরণ ও অগ্নিকাণ্ডে কয়েকজন শিশুসহ অন্তত ২৫ জন নিহত হয়। এরপর ফেব্রুয়ারিতে, স্থানীয় কর্তৃপক্ষ জানায়, চুরি করা অপরিশোধিত তেল পরিশোধন বন্ধ করার জন্য চেষ্টা চালাচ্ছে তারা। এ উদ্দেশ্যে রাজ্যে ব্যাপক ধরপাকড় চললেও তাতে খুব একটা সাফল্য আসেনি।

 

Link copied!