• ঢাকা
  • শনিবার, ১৫ জুন, ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১, ৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

চুরির অভিযোগ করায় কিশোরের আত্মহত্যা


নাটোর প্রতিনিধি
প্রকাশিত: আগস্ট ৭, ২০২১, ০৬:২০ পিএম
চুরির অভিযোগ করায় কিশোরের আত্মহত্যা

নাটোরের নলডাঙ্গায় চুরির অভিযোগ করায় চন্দন সিং (১৪) নামে এক কিশোর আত্মহত্যা করেছে। 

শুক্রবার (৬ আগস্ট) রাত ১১টার দিকে নলডাঙ্গা উপজেলার মাধনগর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। 

চন্দন সিং পূর্বমাধনগর কলেজপাড়া এলাকার প্রদ্বীব সিংয়ের ছেলে।

এলাকাবাসী জানায়, উপজেলার পূর্বমাধনগর এলাকার জনৈক আব্দুর রাজ্জাকের পুকুরে মাছ চুরির ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী আব্দুর রাজ্জাক তিনজনকে অভিযুক্ত করে গ্রাম সালিশ ডাকেন। সালিশে অভিযুক্ত শামীম, ফয়সাল এবং চন্দন সিং নামে তিন কিশোরকে হাজির হওয়ার জন্য বলা হলেও মূল অভিযুক্ত নাজমুল উপস্থিত না হওয়ায় সালিশ হয়নি। 

চন্দনের বিরুদ্ধে চুরির অভিযোগ আনায় বাড়ি ফেরার পথে সে ইঁদুর মারার গ্যাস ট্যাবলেট খায়। এসময় গুরুতর অবস্থায় স্থানীয়রা দেখতে পেয়ে উদ্ধার করে আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পরামর্শ দেন। কিন্তু কোনো টাকা না থাকায় তার লোকজন তাকে ফিরিয়ে নিয়ে নলডাঙ্গা পৌরসভার এলাকার জনৈক পল্লী চিকিৎসক মাসুদ রানার কাছে। সেখানে থেকে বাড়িতে নিয়ে যাওযায় পথে শুক্রবার রাত ১১টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

অভিযোগকারী আব্দুর রাজ্জাক জানান, পুলিশকে জানালে স্থানীয়দের মাধ্যমে বিষয়টি সুরাহা করার পরামর্শ দেন। সেই মোতাবেক বাজার কমিটির সভাপতি ডলারের কাছে মাছ চুরির ব্যাপারে একটি অভিযোগ দেওয়া হয়।

বাজার কমিটির সভাপতি ডলার জানান, মাছ চুরির অভিযোগ পেয়ে তারা শুক্রবার বিকালে এলাকার প্রধানদের নিয়ে সালিশের আয়োজন করেন। কিন্তু সেই সালিশে মূল অভিযুক্ত নাজমুল উপস্থিত না হওয়ায় আগামী রোববার (৮ আগস্ট) আবারও সালিশে উপস্থিত হওয়ার নির্দেশ দিয়ে অভিভাবকদের জিম্মায় অভিযুক্তদের ছেড়ে দেওয়া হয়।

নলডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম জানান, মাছ চুরির ব্যাপারে থানায় কেউ কোনো অভিযোগ দায়ের করেনি এবং থানা কাউকে বিচার সালিশ করার অনুমতি দেয়নি। এদিকে চন্দনের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্যে নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।